সর্বশেষ

মুজিববর্ষের মূল অনুষ্ঠান স্থগিত

বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় জনস্বাস্থ্যের কথা বিবেচনা করে মুজিববর্ষের ১৭ মার্চের আয়োজন সীমিত করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত বিদেশি অতিথিরাও আপাতত আসছেন না।

রোববার (০৮ মার্চ) রাতে রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান উদযাপন কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ড. কামাল অবদুল নাসের চৌধুরী।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীসহ বিভিন্ন দেশের সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধানরা এ আয়োজনে অংশ নিতে ঢাকায় আসার কথা ছিল৷ তবে বিদেশি অতিথিদের নিয়ে এই আয়োজনটি আপাতত স্থগিত করা হচ্ছে৷ পরবর্তীতে সুবিধাজনক সময়ে এ আয়োজন করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী৷

বিশ্ব পরিস্থিতি এবং একই সঙ্গে বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ শনাক্ত হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি৷ বলেন, জনস্বার্থে অনুষ্ঠান আগে যেভাবে সাজানো হয়েছিল তা পুনর্বিন্যাস করা হবে৷

যতটা সম্ভব জনসমাগম পরিহার করে উদযাপন চলবে দেশব্যাপী। অন্যান্য কর্মসূচি চলমান থাকবে।এর আগে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে রোববার সন্ধ্যায় গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে জরুরি বৈঠক করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন৷

উল্লেখ্য, আগামী ১৭ মার্চ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর (মুজিববর্ষ) উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেয়ার কথা ছিল ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, ভুটানের রাজা জিগমে খেসার নামগিয়েল ওয়াংচুক, কম্বোডিয়ার প্রধানমন্ত্রী সামদেক হুন সেন, ইউনেস্কোর সাবেক মহাসচিব ইরিনা বোকোভাসহ বেশ কয়েকজন বিদেশি অতিথির।

এছাড়া কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো ও ইতালির প্রধানমন্ত্রী জুসেপ্পে কোন্তের থাকার বিষয়েও আলোচনা চলছিল।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ