সর্বশেষ

গৃহবধূর মুখমণ্ডল ঝলসে গেলো কবিরাজের ঔষুধে, ২ জনকে পুলিশে সোপর্দ

 

কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী উপজেলায় কবিরাজের ওষুধে এক গৃহবধূর মুখমণ্ডল ঝলসে গেছে। তাকে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ছকিনা বেগম নামের এক নারী কবিরাজ ও তার সহযোগী জাহানারা বেগমকে আটক করে পুলিশে দিয়েছেন এলাকাবাসী।

সোমবার (১১ অক্টোবর) দুপুরে উপজেলার দেওয়ানের খামার (লাকী হল পাড়া) গ্রাম থেকে তাদের আটকের পর পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

ভুক্তভোগী গৃহবধূর স্বামী বলেন, আমার স্ত্রী বেশ কিছুদিন যাবত অসুখে ভুগছিল। নাগেশ্বরী উপজেলার উত্তর ব্যাপারী হাট নামক এলাকা থেকে ছকিনা বেগম নামের এক নারী কবিরাজ প্রতিবেশী আমিনুরের বাড়িতে চিকিৎসা দিতে আসতো। সোমবার স্ত্রীর চিকিৎসার জন্য ওই কবিরাজের কাছে নেওয়া হয়। চিকিৎসার নামে কবিরাজ কী করেছে জানি না। এতে আমার স্ত্রীর সারা মুখে ফোসকা উঠেছে। শরীরে আঘাতের চিহ্ন আছে। আমার স্ত্রী সুস্থ না হলে ওই কবিরাজের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেবো।

এ বিষয়ে ভূরুঙ্গামারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা ডা. সাদ্দাম হোসেন বলেন, ওই নারীর মুখমণ্ডলের প্রায় পুরো অংশই ঝলসে গেছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে কেমিক্যাল জাতীয় কোনো পদার্থ ছোড়া হয়েছে ওই নারীর মুখে। তার শরীরে আঘাতের চিহ্ন দেখা গেছে। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ভূরুঙ্গামারী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আজাহার আলী বলেন, এলাকাবাসী এক নারী কবিরাজ ও তার সহযোগীকে আটক করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে। তাদের থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

50% LikesVS
50% Dislikes
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ