সর্বশেষ

নৌকা ডুবি : তাহিরপুরে নিখোঁজ ব্যক্তির লাশ উদ্ধার

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় নৌকা ডুবিতে নিখোঁজ স্বপনের (৩৮) লাশ তিনদিন পর উদ্ধার করেছে পুলিশ। তিনি কিশোরগঞ্জ জেলার তারাইল উপজেলার কাজলা গ্রামের মোঃ কেরামত আলীর ছেলে। তার স্ত্রী ও এক ছেলে রয়েছে। শুক্রবার সকালে উপজেলার উত্তর শ্রীপুর ইউনিয়নের চুনখলা হাওরে ভাসমান অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করা হর। এর পূর্বে গত বুধবার বিকেল চারটার উপজেলার চুনখলা হাওরে নৌকা ডুবে নিখোঁজ হয়।

স্থানীয় এলাকাবাসী জানান কিশোরগঞ্জ জেলার কাজলা এলাকার স্বপন এলাকায় দীর্ঘ দিন যাবত সয়াবিন ও সরিষা তেলের ব্যবসা করে আসছিলো। প্রতিদিনের মতো সীমান্ত এলাকায় তেল বিক্রয় শেষে বিকাল চারটার দিকে সীমান্ত এলাকা লালঘাট থেকে একটি ছোট নৌকা নিয়ে বর্তমান ঠিকানা দুধের আউটা গ্রামে ফেরার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেয়। পরে ঝড়ো বাতাসের কবলে পরে চুনখলা হাওরের মধ্য স্থলে পৌঁছার পর নৌকাটি ডুবে যায়। নিখোঁজ ব্যক্তিকে উদ্ধারের জন্য স্থানীয় ডুবুরিরা হাওরে নামলেও সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত নিখোঁজ ব্যক্তিকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। এর পর বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত নিখোঁজ স্বপনের লাশ উদ্ধারের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয় ফায়ারসার্ভিসের একটি দল।

তাহিরপুর থানার ওসি মোহাম্মদ আতিকুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, নৌকা ডুবিতে স্বপন নামে এক ব্যক্তি নিখোঁজ ছিল, তার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। কোন অভিযোগ না থাকায় লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ