সর্বশেষ

দেশে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা বাড়ছে

দেশে করোনা আক্রান্তের হার বেড়েই চলেছে। তবে ভাইরাস থেকে মুক্ত হওয়ার হারও বাড়ছে। দেশে এ পর্যন্ত ১ হাজার ৬৩ জন রোগী সুস্থ হয়েছেন।

আজ স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনাভাইরাস বিষয়ক নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়। অনলাইনে বুলেটিন উপস্থাপন করেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে রাখা হয়েছে ৬৫ জনকে, এখন পর্যন্ত মোট আইসোলেশনে রাখা হয়েছে এক হাজার ৬৩৭ জনকে। ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশন থেকে ছাড়া পেয়েছেন ৬০ জন, এখন পর্যন্ত মোট ছাড়া পেয়েছেন এক হাজার ৮২ জন।

বিভিন্ন বিভাগের হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হওয়া ব্যক্তিদের সংখ্যা উল্লেখ করে নাসিমা সুলতানা বলেন, ‘মহানগরীর হাসপাতালগুলো বাদে ঢাকা বিভাগের হাসপাতালগুলো থেকে ছাড়া পেয়েছেন ২৭২ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের হাসপাতালগুলো থেকে ৭২ জন, রাজশাহী থেকে দুইজন, খুলনা থেকে ছয়জন, বরিশাল থেকে ২৯ জন, সিলেট থেকে দুইজন, ময়মনসিংহ থেকে ৩১ জন এবং রংপুর বিভাগের হাসপাতালগুলো থেকে ২৫ জন সুস্থ হয়ে ছাড়া পেয়েছেন।’

অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় প্রাতিষ্ঠানিক ও হোম কোয়ারেন্টিন মিলে কোয়ারেন্টিন করা হয়েছে ৯ হাজার ৮৭৪ জনকে। কোয়ারেন্টিন থেকে গত ২৪ ঘণ্টায় ছাড়া পেয়েছেন দুই হাজার ১৪৯ জন, এখন পর্যন্ত ছাড়া পেয়েছেন এক লাখ ৯২ হাজার ৫৯২ জন। বর্তমানে মোট কোয়ারেন্টিনে আছেন ৬৭ হাজার ৭৩৯ জন।

গতকাল পর্যন্ত ৮ হাজার ৭৯০ জনের শরীরে করোনা শনাক্তের কথা জানানো হয়েছিল। আজকের ব্রিফিংয়ে নতুন করে আরও ৬৬৫ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়, যা একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্ত। তাদের নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যাটা দাঁড়ালো ৯ হাজার ৪৫৫ জনে। একই সময়ে আরও দুইজন করোনায় মারা যাওয়ায় এই মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ১৭৭ জনে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ