সর্বশেষ

ঋণের দুশ্চিন্তায় অন্তঃসত্ত্বা নারীর আত্মহত্যা

ময়মনসিংহে ঋণের টাকা পরিশোধের দুশ্চিন্তায় এক অন্তঃসত্ত্বা নারী আত্মহত্যা করেছেন। আয়েশা খাতুন (৩০) নামের ওই নারী একটি মাদ্রাসার শিক্ষকের স্ত্রী। পাঁচ সন্তানের এ মা চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন।

আজ সোমবার সকাল ৭টায় আয়েশা খাতুন নামের ওই নারী তার বাড়ির গোসলখানায় গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন। নিজের মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়, এমন একটি চিরকুট লিখে রেখে যান তিনি।

আয়েশা আক্তারের স্বামী মাওলানা ওমর ফারুক (৩২) শেরপুর জেলায় এক কওমি মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করেন। তার পাঁচ সন্তানের মধ্যে বড় সন্তানের বয়স ১২ বছর।

আয়েশা আক্তারের চিরকুটে লেখা ছিল, ‘প্রিয়, মা, বাবা, ভাই,  বোন, আমার পাঁচটা ছোট ছোট বাচ্চার রান্না, ধোয়া, গোছানো, খাওয়ানো, পড়ানো তার পাশাপাশি অনেক টাকা ঋণের টেনশনে আমি আধমরা। তার মধ্যে তার মধ্য দিয়ে আবার ৬ নাম্বার বাচ্চার টেনশনে আমি আত্মহত্যা বেছে নিলাম। এর জন্য দায়ী কেউ নয়। সবার কাছে দোয়া চাই। আল্লাহ হাফেজ।’

ধোবাউড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. চাঁদ মিয়া জানান, খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ ময়মনসিংহে পাঠানো হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ