সর্বশেষ

ত্রাণ বিতরণে ‘অনিয়ম’র প্রতিবাদ করায় মামলা, ডিসি বরাবরে অভিযোগ


সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ৫নং ওয়ার্ডে ত্রাণ বিতরণে ‘অনিয়ম’ এর প্রতিবাদ করায় যুবককে ‘মিথ্যা’ মামলার অভিযোগে সিলেট জেলা প্রশাসক বরাবরে অভিযোগ করেছেন শাহী ঈদগাহ হুসনাবাদের বাসিন্দা দিলুয়ার হোসেন (দিলু গাজী)।

আজ সোমবার তিনি সিলেট সিলেট জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগপত্রে তিনি উল্লেখ করেন, গত ৪ এপ্রিল ২০২০ইং তারিখে ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রেজওয়ান আহমদের ত্রাণ বিরতণ জালিয়াতির প্রতিবাদ করে ওয়ার্ডের এককজন যুবক রনি গাজী প্রতিবাদ করেন। এর জের ধরে দিলুয়ার হোসেন দিলুর ভাতিজা রনি গাজী কাউন্সিলর রেজওয়ানের লোকজনের কবলে আটক হয়ে যায় এবং এয়ারপোর্ট থানারধীন আম্বরখানা ফাঁড়ির ইনচার্জ মোঃ ইয়াসিন এর ত্রাণ লোটপাটের মামলায় জড়িয়ে দেয়। উক্ত সংবাদ জানতে পেরে দিলুয়ার হোসেন দিলু উপস্থিত হয়ে কাউন্সিলর রেজওয়ানকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে গেলে তিনি তার উপরও ক্ষেপে উঠে তাকেও মামলায় জড়িয়ে দেন।

দিলুয়ার হোসেন হোসেন অভিযোগ করেন, জালিয়াতি ঢেকে রাখতে কাউন্সিলর রেজওয়ান ‘মিথ্যা মামলা’ দায়ের করেন। উক্ত বিষয়ে সরেজমিন তদন্ত করতে জেলা প্রশাসক বরাবরে তিনি আহ্বান জানান। এছাড়াও ‘মিথ্যা মামলা’ মামলা থেকে নিষ্কৃতি পেতে জেলা প্রশাসকের নিকট তিনি আবেদন করেন।

উল্লেখ্য, এর আগে দিলুয়ার হোসেন দিলু সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার বরাবরেও অভিযোগ করে দিলুয়ার হোসেন দিলু।

ওই অভিযোগপত্রে তিনি উল্লেখ করেন, ১৮ প্যাকেট খাদ্য সামগ্রী লুণ্ঠন করে নিয়ে যাওয়ার মিথ্যে কাহিনী সাজিয়ে থানায় মামলা দায়ের করা হয়। মামলা নং-০৭, তারিখ-৫-৪-২০২০ইং।
দিলুয়ার হোসেন দিলু অভিযোগ করেন, প্রকৃত পক্ষে হুসনাবাদ এলাকায় কোনো লুটপাটের ঘটনা ঘটেনি। বরং কাউন্সিলর কর্তৃক সিসিকের খাদ্য ফান্ডের খাদ্য সামগ্রী আত্মসাতের প্রতিবাদ করা হয়েছিল।
হুসনাবাদের বাসিন্দা দিলুয়ার হোসেন দিলুর অভিযোগপত্রে স্থানীয় ১০০ জনেরও বেশি লোকের স্বাক্ষর রয়েছে, যাতে বিষয়টি তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে সিলেট মেট্রোপলিট পুলিশ কমিশনারের প্রতি আবেদন জানানো হয়।

50% LikesVS
50% Dislikes
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ