সর্বশেষ

কিশোরদের হাতে মার খেল রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান সাহেদ….

সীমান্ত দিয়ে নৌকায় করে ভারতে পালিয়ে যাওয়া গ্রেফতার হন রিজেন্ট হাসপাতাল প্রতারণা মামলার প্রধান আসামি ও রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ করিম।

বুধবার ভোরে সাতক্ষীরার দেবহাটা সীমান্ত দিয়ে নৌকায় করে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি নেয়ার সময় গোয়েন্দাসহ র‍্যাবের একটি দল তাকে গ্রেফতার করে।

সাহেদের ধরা পড়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে তাকে দেখতে ছুটে আসে এলাকাবাসী। এসময় বেশকিছু কিশোর ক্ষুব্ধ হয়ে সাহেদকে মারধর শুরু করে। এরকম একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এখন ভাইরাল। ভিডিওতে দেখা যায়, এক কিশোর লাঠি দিয়ে সাহেদকে আঘাত করছে। অপর একজন বলছে, সবাই মিলে একে মারা উচিত।

ভারতে পালানোর চেষ্টার সময় সাহেদ জিন্সের প্যান্ট ও নীল রঙের শার্টের ওপর কালো রঙের বোরকা পরে ছিলেন। তার মাথার সাদা চুল ছিল কালো। এছাড়াও গ্রেফতার এড়াতে আরো কিছু অভিনব পদ্ধতি অনুসরণ করেছিলেন সাহেদ।

সরকারের সঙ্গে চুক্তির শর্ত ভঙ্গ করে টাকার বিনিময়ে করোনাভাইরাস শনাক্তের নমুনা সংগ্রহ করা এবং ভুয়া সনদ দেওয়ার অভিযোগ গত ৬ জুলাই রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযান চালায় র‌্যাব। পরদিন উত্তরা পশ্চিম থানায় র‌্যাব বাদী হয়ে মো. সাহেদকে এক নম্বর আসামি করে মামলা করে। সেই মামলায় ৮ দিন পলাতক থাকার পর গ্রেফতার হলেন সাহেদ করিম।

50% LikesVS
50% Dislikes
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ