সর্বশেষ

মাস্ক না পরায় জগন্নাথপুরে ১৭ জনকে জরিমানা, সচেতনতা মূলক প্রচারণা

 

মহামারী করোনাভাইরাস এর দুর্যোগময় মুহুর্তে মাস্ক না পরে চলাফেরার কারনে জগন্নাথপুরে ১৭ ব্যাক্তির নিকট হতে ৭ হাজার ৩ শত টাকা আদায় করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত এর বিচারক মোঃ ইয়াসির আরাফাত।

সুনামগঞ্জ জেলায় হু হু করে বেড়েই চলছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা । বিপজ্জনক চতুর্থ ধাপের প্রভাবে এই সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে ক্রমাগত। চতুর্থ ধাপটিকে চিকিৎসা সংশ্লিষ্টরা খুবই ভয়ানক বলে উল্লেখ করেছেন। আক্রান্ত রোগী থেকে প্রথম সংক্রামিত হওয়া রোগীর উপসর্গ দেখা না দেওয়ায় ঘুরে ফিরেন সর্বত্র। আর এভাবেই তা ছড়িয়ে পরে সবার মধ্যে।এই জেলার জগন্নাথপুর উপজেলায় এখন পর্যন্ত ১৭জন লোক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। ১১জন লোক আইসোলেশন সেন্টারে রয়েছেন। তার পরও মানুষের মধ্যে সচেতনতা নেই। উপজেলাবাসী মানছেন না স্বাস্থ্যবিধি, অকারনে বাহিরে করছেন ঘুরাঘুরি, ব্যবহার করছেন না মাস্ক।

সোমবার (৮ জুন) উপজেলা সদর ও রানীগঞ্জ বাজারে জগন্নাথপুর উপজেলার নিবার্হী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী ভূমি কর্মকর্তা মোঃ ইয়াসির আরাফাত মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। দুই বাজারের সংক্রামন রোগ ব্যাধি ধারায় ১৭ ব্যক্তিকে মাস্ক ব্যবহার না করায় ৭ হাজার ৩শত টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। উভয় বাজারের লোকদের মাইকিং করে সচেতনতার জন্য প্রচারনা চালানো হয়। মোবাইল কোর্ট পরিচালনার সময় জগন্নাথপুর উপজেলার মৎস্য কর্মকর্তা আকতারুজ্জামান, জগন্নাথপুর থানার এসআই মনিরুজ্জামান মনির, উপজেলা ভূমি অফিসের অফিস সহকারী ইমরান আলী সহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ