সর্বশেষ

ছাতকে নমুনা দিয়েই চলে গেছেন ঢাকা: রিপোর্ট এলো পজেটিভ!

ছাতকে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে ঢাকা ফেরত গার্মেন্টস কর্মী শাহ আলম (২২) নামের এক যুবক কোভিড ১৯ পরিক্ষার জন্য নমুনা দিয়েই ফের চলে গেছেন ঢাকা।
অবশেষে নমুনা সংগ্রহের ১৪তম দিনে তার রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডাক্তার রাজিব চক্রবর্তী। ওই যুবক ঢাকার একটি গার্মেন্টস কোম্পানিতে কাজ করেন বলে জানা গেছে।
জানা যায়, ছাতকের কালারুকা ইউনিয়নের শংকরপুর গ্রামের বাসিন্দা ঐ যুবক ঢাকা থেকে বাড়িতে আসার খবর পেয়ে গত ২২- এপ্রিল সন্দেহজনকভাবে কোভিড-১৯ পরিক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয়। নমুনা সংগ্রহের পর তাকে বাড়িতেই আলাদা কক্ষে থাকার জন্য নির্দেশনা দেয় প্রশাসন।
কিন্তু রিপোর্টের অপেক্ষা না করেই গত (৩-মে) তিনি আবার ঢাকা চলে যান। গত ৫ মে ছাতক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে জানানো হয় তার শরিরে করোনা পজেটিভ এসেছে।

এদিকে একই গ্রামের চট্রগ্রাম ফেরত এক যুবক নমুনা দিয়েই পার্শ্ববর্তী গ্রামে তার নানা বাড়িতে চলে যান। রিপোর্ট আসার পর প্রশাসনের পক্ষ থেকে তার বাড়ি লকডাউন করা হলেও যে বাড়িতে সে অবস্থান করেছিলো সেটির ব্যাপারে এখনো কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

এনিয়ে এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে। এ ব্যাপারে ছাতক উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ গোলাম কবির জানিয়েছেন, ঢাকায় চলে যাওয়া ঐ যুবককে বাসায় থাকতে বলা হয়েছিলো। সে নির্দেশনা না মেনে ঢাকা চলে গেছে খবর পেয়েছি। তার সাথে যোগাযোগ করা হচ্ছে। এবং খবরাখবর নিয়ে অপর আক্রান্তের নানার বাড়িও লকডাউন করা হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ