সর্বশেষ

লন্ডনী সেজে বিয়ে-প্রতারণা, মহিলা নেত্রীসহ আটক ৩

লন্ডনী মেয়ে সেজে বিয়ে করার দায়ে প্রতারক চক্রের সঙ্গে জড়িত তিনজনকে গ্রেপ্তার করা করেছে সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর থানা পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, বিশ্বনাথ উপজেলার কোনারাই গ্রামের তৌহিদ উল্লার মেয়ে কেন্দ্রীয় জাতীয় মহিলা পার্টির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শিউলী বেগম, দিলসানা বেগম ও ইয়াছমিন বেগম।

আজ রোববার তাদেরকে গ্রেপ্তারের পর সুনামগঞ্জ জেল হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

জানা যায়, জগন্নাথপুর উপজেলার লোহারগাঁও গ্রামের আশরাফুল রহমানের সঙ্গে পরিচয় হয় সিলেটের ওসমানীনগর থানার করমসী গ্রামের  রহিম উল্লাহর। পরিচয়ের সূত্র ধরে গত ফেব্রুয়ারি মাসে আশরাফুলের সঙ্গে সিলেট নগরীর উপশহর এলাকায় একটি বাসায় লণ্ডনী পাত্রী হিসেবে শিউলী বেগমকে দেখানো হয়।শি উলী নিজেকে লন্ডনী কন্যা পরিচয় দেয়। এক পর্যায়ে আশরাফুলকে বিয়ে করে লন্ডন নিয়ে যাবে বলে জানায় শিউলী। এতে আশরাফুল রাজি হয়ে গত ১০ ফেব্রুয়ারি সিলেটে একটি হোটেল নগদ ৫ লাখ টাকার কাবিন ও ৭ ভরি স্বর্ণালংকার দিয়ে শিউলী বিয়ে করে গ্রামের বাড়ি নিয়ে আসে আশরাফুল। বিয়ের কয়েকদিন যেতে না যেতে শিউলী শ্বশুরবাড়ির লোকজনের সঙ্গে ঝগড়া করে তার বাবার বাড়ি চলে যায়।

কিছুদিন পর পর শিউলী আশরাফুলকে মুঠোফোনে জানায় সে লন্ডন চলে যাচ্ছে। তাদের সম্পর্ক এখানেই শেষ। এ ঘটনার কিছুদিন পর আশরাফুল রহমান জানতে পারেন শিউলী বেগম লন্ডন নেওয়ার কথা বলে সম্প্রতি জগন্নাথপুরের আশারকান্দি ইউনিয়নের পাইকপাড়া গ্রামের কামরুল ইসলামেকে বিয়ে করেছে।

এরপর আশরাফুল জগন্নাথপুর খানায় অভিযোগ দিলে পুলিশ ৪ এপ্রিল রাতে কামরুল ইসলামের বাড়ি থেকে ভুয়া লন্ডনী কন্যা শিউলী বেগমসহ তার অপর দুই বোনকে গ্রেপ্তার করে। জগন্নাথপুর খানের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘প্রতারণা চক্রের ভুয়া লন্ডনীকন্যাসহ গ্রেপ্তারকৃত তিনজনক সুনামগঞ্জ জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা হয়েছে।’

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ