সর্বশেষ

ভিসা ফি ফেরত দেবে সৌদি আরব

ওমরাহ করতে যারা ভিসা ও অন্যান্য সার্ভিস চার্জ দিয়েছিলেন তাদের সেসব ফি’র টাকা ফেরত দেবে সৌদি আরব। করোনা ছড়িয়ে পড়া রোধ করতে ২৭ ফেব্রুয়ারি বিদেশিদের ওমরাহ পালনে স্থগিতাদেশ দেয় দেশটি। ফলে প্রায় ১০ হাজার বাংলাদেশি ওমরাহ’র জন্য ভিসা করেও যেতে পারেননি। তাদের ভিসা ফিসহ অন্যান্য খরচ ফেরত পাওয়া নিয়ে সংকট দেখা দিয়েছিল। এরই মধ্যে রবিবার (১ মার্চ) সৌদির ধর্ম মন্ত্রণালয় ভিসা ফি ফেরত দেওয়ার ঘোষণা দেয়।

সৌদির ধর্ম মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে রোববার এ খবর জানিয়েছে দেশটির প্রভাবশালী সংবাদ মাধ্যম আরব নিউজ।

এর আগে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস (কভিড-১৯) মোকাবেলায় ওমরাহ পালন ও মসজিদে নববী পরিদর্শন এবং টুরিস্ট ভিসা সাময়িক বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে সৌদির সরকার।

স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের পরামর্শ অনুযায়ী এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে সৌদি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

এক টুইট বার্তায় সৌদির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, ‘সৌদি আরবে করোনাভাইরাসের প্রবেশ এবং ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে সর্বোচ্চ সতর্কতামূলক এবং আগাম প্রতিরোধমূলক পদক্ষেপের অংশ হিসেবে যথাযথ স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের পরামর্শে ওমরাহ ও ট্যুরিস্ট ভিসা সাময়িক বন্ধ করা হয়েছে।’

এছাড়া উপসাগরীয় দেশগুলোতে অবস্থানরত সৌদি নাগরিকদের দেশটির জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যবহার করে আসা-যাওয়া স্থগিত করেছে সৌদি আরব। তবে আগে থেকে যাদের কাছে এই পরিচয়পত্র আছে তারা ইচ্ছে করলে দেশে ফিরতে পারবে এবং উপসাগরীয় দেশগুলোর নাগরিকরাও সৌদি ছাড়তে পারবে।

গালফ নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সাময়িক সময়ের জন্য করোনার প্রাদুর্ভাব অঞ্চলের লোকজনদের ভিসা দেবে না সৌদি আরব।

আল-আরাবিয়ার খবরে বলা হয়েছে, মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে যখন করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের সংখ্যা দ্রুত বাড়ছে, তখনই এই পদক্ষেপ নেয়া হল। ইরানে ১৯ জন মারা গেছেন করোনা ভাইরাসে। চীনের বাইরে এই ভাইরাসে সর্বাধিক ইরানেই মারা গেছে।

এছাড়া বাহরাইনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে নয়জন। ওমানে সংক্রমণ ঘটেছে তিনজনের দেহে। কুয়েত, ইরাক, মিসর, ইসরায়েলেও সংক্রমণ ঘটেছে করোনাভাইরাসের। সোমবার দেশগুলোতে একজন করে আক্রান্তের খবর নিশ্চিত হওয়া গেছে।

তবে সৌদি আরবে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কেউ শনাক্ত হয়নি বলে গত বুধবার নিশ্চিত করেছিলেন দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী তৌফিক আল-রাবিয়াহ।

50% LikesVS
50% Dislikes
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ