সর্বশেষ

প্রধানমন্ত্রীকে কি কথা দিয়েছেন নাদেল..

সিলেটে কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল।

বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নগরীর একটি হেটেলে এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করেন তিনি।এসময় বিভিন্ন প্রসঙ্গের সাথে নাদেলের নামে সিলেটে ছাত্রলীগের একটি গ্রুপ থাকার বিষয়টি তুলে ধরেন সাংবাদিকরা।

এ প্রসঙ্গে নাদেল বলেন, সাংগঠনিক সম্পাদকদের দায়িত্ব পাওয়ার পর প্রথম প্রধানমন্ত্রী আমাকে বলেছেন, তোমাকে আমি তৃণমূল থেকে নিয়ে এসেছি। এখন তোমার নামে গ্রুপিং শুনতে চাই না। আমি প্রধানমন্ত্রীকেও কথা দিয়েছে, আমার নামে কোনো গ্রুপিং হবে না। আজ আপনাদেরও কথা দিলাম।

এসময় নাদেল আরও জানান, আওয়ামী লীগের ২৯ তম জাতীয় কাউন্সিলে আমি কাউন্সিলরও ছিলাম না। সারাদিন হোটেলে বসে কাটিয়েছি। সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পাওয়াটা তাই আমার কাছে ছিলো অপ্রত্যাশিত। তবে আমি সৌভাগ্যবান। সৃষ্টিকর্তার করুনা ও আপনাদের সহযোগিতা আমার প্রতি সবসময়ই ছিলো। আগামীতেও সহযোগিতা চাই।

ময়মনসিংহ বিভাগের দায়িত্ব পেয়ে নিজে খুশি জানিয়ে নাদেল বলেন, আমাদের একজন সাংগঠনিক সম্পাদক ছাড়া সকল সাংগঠনিক সম্পাদককে ভিন্ন ভিন্ন বিভাগের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। আমি ময়মনসিংহ যাওয়ায় ব্যক্তিগত ভাবে খুশি। আমি যেহেতু নতুন সেহেতু ছোট বিভাগে কাজ করতে আমার জন্য সুবিধা হবে।

নাদেল বলেন, আমার বিরুদ্ধে নামে-বেনামে প্রায় ১৫-২০ টি অভিযোগ দুদক সহ বিভিন্ন জায়গায় দেওয়া হয়েছে। সংশ্লিষ্টরা এসব অভিযোগ খতিয়ে দেখে কোনো কিছু পাননি। ফলে আল্লাহর রহমতে আমি এ যাত্রায় বেঁচে যাই।

এসময় সিলেট জেলা প্রেসক্লাব, সিলেট প্রেসক্লাব, ইলেকট্রনিকস মিডিয়া জার্নালিস্ট এ্যাসোসিয়েশন (ইমজা) নেতৃবৃন্দসহ সিলেটে কর্মরত বিভিন্ন প্রিন্ট, ইলেকট্রনিক ও অনলাইন মিডিয়ার সাংবাদিকেরা উপস্থিত ছিলেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ