সর্বশেষ

ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ

ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদে ও বখাটেদের গ্রেফতারের দাবিতে সুনামগঞ্জে সড়ক অবরোধ করেছেন সদর উপজেলার জমিরুননূর উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও অভিভাকরা।

মঙ্গলবার সকালে ১০ থেকে সাড়ে ১১ টা পর্যন্ত লীলপুর বাজার এলাকায় সুনামগঞ্জ-সিলেট সড়কের যানবাহন আটকিয়ে এই অবরোধ কর্মসূচী পালন করেন তারা। পরে পুলিশের হস্তক্ষেপে অবরোধ তুলে নেন বিক্ষোব্ধ শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে জমিরুন নূর উচ্চ বিদ্যালয়ে আসা যাওয়ার পথে ছাত্রীদের সাথে অশালীন আচরণ, অশ্লীল অঙ্গভঙ্গিসহ ইভটিজিং করে থাকেন জানিগাঁও এলাকার কিছু উশৃংখল বখাটে। ফলে ছাত্রীদের নিরাপক্তা নিয়ে প্রতিনিয়ত শঙ্কায় থাকেন অভিভাবকরা। এই বখাটেদের বিরুদ্ধে স্থানীয়ভাবে একাধিকবার শালিস হলেও বিহীত ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় উপকার পাচ্ছেন না সাধারণ শিক্ষার্থী ও তাদের পরিবার।

সম্প্রতি বিদ্যালয় থেকে বাড়ি ফেরার পথে লীলপুর খেয়াঘাট এলাকায় সাব্বির, ওয়ানহার ও ইয়াহিয়া নামে তিন বখাটে এক ছাত্রীকে লাঞ্ছিত করে।

এসময় স্থানীয়রা প্রতিবাদ জানালে বখাটেরা পালিয়ে যায়। এই ঘটনায় শঙ্কিত হয়ে বিদ্যালয়ে ছাত্রীদের পাঠানো বন্ধ করে দেন কয়েক গ্রামের অভিভাবকরা। বিষয়টি বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির দায়িত্বশীল ও স্থানীয় জনপ্রতিনিদের অবহিত করলেও সুরাহা না পাওয়ায় বাধ্য হয়ে রাস্তা অবরোধ করেন ভোক্তভোগী শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও স্থানীয় এলাকাবাসী।

বিক্ষোভকারীরা বখাটেদের ২৪ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতারের আল্টিমেটাম দিয়ে বলেন, অভিলম্বে বখাটেদের গ্রেফতার করে শাস্তি প্রদান করতে হবে। নতুবা কঠোর কর্মসূচী ডাক দেয়া হবে। ছাত্রীদের বিদ্যালয়ে চলাচলে নিরাপত্তা বিধান করে আইনশৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পুলিশ প্রশাসনের প্রতি আহবান জানান তিনি।

বিক্ষোভকারীদের দাবির প্রতি একাত্মতা পোষণ করে সদর থানার তদন্ত অপারেশন বলেন, ইভজারদের বিরুদ্ধে আমরা অনড় অবস্থানে। দ্রুত সময়ের মধ্যে ইভটেজারদের গ্রেফতার করা হবে। ছাত্রীরা যাতে নির্বিঘ্নে বিদ্যালয়ে যেথে পারে সেই জন্যে এই এলাকায় পুলিশের টহল নিয়মিত করা হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ