সর্বশেষ

প্রবাসীর স্ত্রীকে হত্যা, ফার্মেসি মালিক গ্রেপ্তার

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে একটি ফার্মেসি থেকে এক নারীর মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় করা মামলায় ফার্মেসির মালিককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘আসামিকে সিআইডি ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার করেছে। সিআইডি পুলিশের পক্ষ থেকে শুক্রবার দুপুর ১টায় আমাকে জানানো হয়েছে।’

এর আগে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে নিহতের ভাই হেলাল মিয়া ফার্মেসির মালিক জিতেশ চন্দ্র গোপ অভিকে আসামি করে জগন্নাথপুর থানায় মামলাটি করেন।

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে একটি ফার্মেসি থেকে বৃহস্পতিবার দুপুরে শাহানা পারভিন জ্যোৎস্নার ৬ টুকরো খণ্ডিত মরদেহটি উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত ৩৮ বছর বয়সী জ্যোৎস্না উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের নারিকেলতলা গ্রামের সৌদি আরব প্রবাসী সুরুক মিয়ার স্ত্রী। জগন্নাথপুর পৌরসভার নয়াবাজার কলোনিতে দুই মেয়ে ও এক ছেলেকে নিয়ে থাকতেন তিনি।

নিহতের ভাই হেলাল মিয়া বলেন, ‘বুধবার বেলা ৩টার দিকে আমার বোনকে অভি মেডিকেলের মালিক জিতেশ চন্দ্র গোপ অভি ফোন করে তার ফার্মেসিতে নিয়ে যান। এরপর আমার বোন আর বাসায় ফেরেনি। রাতে খোঁজাখুঁজির পর অভির সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি আমার বোনকে ফিরিয়ে দেবেন বলে বৃহস্পতিবার সকালে

পৌর শহরের একটি বাজারে যেতে বলেন।সকালে বাজারে গিয়ে প্রায় ঘণ্টাখানেক অপেক্ষা করার পর অভিকে ফোন দেই, কিন্তু ফোন বন্ধ পাই। পরে পুলিশ নিয়ে তার বাসায় গিয়ে দেখি বাসার দরজায় তালা লাগানো। তখন আমাদের সন্দেহ হয়।

দুপুরে বাজারে তার ফার্মেসিতে গিয়ে তালা ভেঙে আমার বোনের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।’মরদেহ উদ্ধারের পর জগন্নাথপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান জানিয়েছিলেন, হত্যার পর লাশটি কেটে ৬ টুকরো করা হয়েছে। পরে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।

50% LikesVS
50% Dislikes
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ