সর্বশেষ

আফিফকে বল ছুড়ে মারায় শাহিন আফ্রিদির জরিমানা

 

বাংলাদেশ বনাম পাকিস্তানের মধ্যকার টি-টোয়েন্টি সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে শনিবার (২০ নভেম্বর) আফিফ হোসেন ধ্রুবকে বল ছুড়ে মারেন পাক পেসার শাহিন শাহ আফ্রিদি।

যদিও পরক্ষণেই হাত উঁচিয়ে বাংলাদেশি ব্যাটারের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেন তিনি। এছাড়া ম্যাচ শেষে আফিফকে জড়িয়ে ধরতেও দেখা যায় শাহিন আফ্রিদিকে। তবে এতসবের পরও জরিমানা থেকে রেহাই পেলেন না পাক পেসার।

আফিফের ওপর থ্রো করে আইসিসির কোড অফ কন্ট্রাক্ট এর লেভের ওয়ান ভঙ্গ করায় শাহিন আফ্রিদিকে ম্যাচ ফির ১৫ শতাংশ জরিমানা করা হয়েছে।

এর আগে প্রথম ম্যাচে নুরুল হাসান সোহানকে স্লেজিং করেছিলেন পাক পেসার হাসান আলিও। এরই মধ্যে তার শাস্তিও পেয়েছেন তিনি। তাকে ওয়ান ডেমিরিটস পয়েন্ট দেওয়া হয়েছে।

শনিবার (২০ নভেম্বর) দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের ইনিংসের প্রথম ওভারেই বল হাতে সাফল্য পান শাহিন শাহ। দলকে এনে দেন কাঙ্ক্ষিত ব্রেকথ্রু। আউট করেন সাইফ হাসানকে। তাই হয়ত নিজের দ্বিতীয় ওভারে আফিফ হোসেন ধ্রুব’র ছক্কা হাঁকানো হজম করতে পারেননি শাহিন আফ্রিদি।

নিজের দ্বিতীয় ওভারে বল করতে এসে প্রথম বলে মাত্র এক রান দিয়েছিলেন শাহিন শাহ। কিন্তু দ্বিতীয় বলেই ছক্কা হাঁকায় আফিফ হোসেন। এরপরের বলে কোনো রান নেওয়ার চেষ্টাই করেননি আফিফ। ক্রিজেই বল ছিল। কিন্তু তারপরও অন্যায়ভাবে আফ্রিদি দৌড়ে এসে আফিফের পা বরাবর বল ছুড়ে মারেন।

যা বিক্ষুব্ধ করেছে বাংলাদেশের সমর্থকদের। বিষয়টি নিয়ে ক্রিকইনফোতেও মন্তব্য করা হয়েছে।

শরিফ নামের একজন টুইট করেছেন, ‘শাহিনের কাছ থেকে অপ্রয়োজনীয় আগ্রাসী মনোভাব। এটার কোনো প্রয়োজনই ছিল না। যেহেতু সে (আফিফ) ক্রিজের মধ্যেই ছিলেন।’

এদিকে, মিরপুরে টাইগার বাহিনীকে হারিয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখেই ২-০ ব্যবধানে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতেছে পাকিস্তান। তিন ম্যাচের সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে শনিবার (২০ নভেম্বর) বাংলাদেশকে ৮ উইকেটে হারায় বাবর আজম বাহিনী।
 

50% LikesVS
50% Dislikes
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ