সর্বশেষ

দিরাইয়ের কালনী নদীতে ৯ দিনে পানিতে ডুবে ৩ শিশুর মৃত্যু

 

সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে কালনী নদীতে তলিয়ে যাওয়ার একদিন পর সুমাইয়া নামে ৯ বছর বয়সী শিশুর লাশ নদীতে ভেসে উঠেছে।
সে সিলেট সদর উপজেলার টুকের বাজার এলাকার জাহাঙ্গীর হোসেনের মেয়ে।

শুক্রবার সকাল ৮টার দিকে তলিয়ে যাওয়া স্থানেই তার লাশ ভেসে উঠে। পরে গ্রামের লোকজন সুমাইয়ার লাশ উদ্ধার করে।

এ নিয়ে উপজেলায় ৯ দিনের ব্যবধানে পানিতে ডুবে ৩ শিশুর মৃত্যু হল।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার (৭ অক্টোবর) বেলা ৩টার দিকে দিরাই উপজেলার করিমপুর ইউনিয়নের টুক দিরাই গ্রাম সংলগ্ন কালনী নদীতে সহপাঠী দুই মেয়ের সাথে নদীতে গোসল করতে যায় সুমাইয়া। এ সময় পানিতে নেমে তলিয়ে যায় সে। সহপাঠী মেয়েরা বাড়িতে খবর দিলে স্থানীয়রা অনেক খোঁজাখুঁজি করে সুমাইয়ার সন্ধান না পেয়ে ফায়ার সার্ভিসে খবর দেয়।

সুনামগঞ্জ থেকে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল ঘটনাস্থলে এসে দিনভর উদ্ধারের চেষ্টা চালালেও তার কোন সন্ধান পায়নি। সুমাইয়া বুধবার দিরাই উপজেলার টুক দিরাই গ্রামে তার নানা মৃত ঈমান আলীর বাড়িতে বেড়াতে আসে।

এর আগে গত রোববার (৩ অক্টোবর) দিরাই উপজেলার করিমপুর ইউনিয়নের পুরাতন কর্ণগাঁও গ্রামের ফারুক মিয়ার ছেলে রিফাত (৭) দুপুর ১২ টার দিকে পরিবারের লোকদের অগোচরে বাড়ির পাশে পুকুরের পানিতে পরে তলিয়ে যায়। স্বজনরা বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুজি করে না পেয়ে একপর্যায়ে পুকুরের পানিতে তলিয়ে থাকা অবস্থায় রিফাত কে উদ্ধার করে। দিরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার রিফাতকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে গত বুধবার ২৯ সেপ্টেম্বর দুপুরে উপজেলার করিমপুর ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের চানপুর গ্রামের পাশে কালনী নদীতে ডুবে ছয় বছর বয়সী এক শিশুর মৃত্যু হয়। সে চানপুর গ্রামের হরিদাশ বিশ্বাসের ছেলে দ্বীপ বিশ্বাস (৬)।

 

 

50% LikesVS
50% Dislikes
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ