সর্বশেষ

করোনার দুই ধরনের সংক্রমণে নারীর মৃত্যু

বেলজিয়ামে আলফা এবং বিটা দুই ধরনের করোনাভাইরাসের সংক্রমণে ৯০ বছরের এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। এটা দেখে বিশেষজ্ঞরা সবাইকে সতর্ক হতে বলেছেন। বেলজিয়ামের এই নারী চলতি বছরের মার্চে মারা যান। তিনি টিকা গ্রহণ করেননি বলে জানা যায়। যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি থেকে এ খবর জানা গেছে।

চিকিৎসকরা মনে করছেন, করোনা আক্রান্ত পৃথক দুটি ব্যক্তির দ্বারা তিনি আক্রান্ত হয়েছিলেন। এটাই প্রথম কোনো দলিলকৃত ঘটনা। তবে দুই ধরনের করোনায় সংক্রমণের ঘটনা আরও ঘটছে। যদিও এটা খুবই বিরল।

বেলজিয়ামের এই নারীর বিষয়টি বিশেষজ্ঞদের চিন্তিত করে তুলছে। নারীটি যে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন তা করোনার নতুন সংস্করণ। এছাড়া এটি খুব উদ্বেগজনক বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। ল্যাবে যখন তার নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছিল তখন দেখা যায়, করোনার নতুন দুটি ধরন আলফা ও বিটায় আক্রান্ত হয়েছেন তিনি। আর করোনার এই দুটি ধরন খুব দ্রুত ছড়ায়।

বেলজিয়ামের অ্যালস্টের ওএলভি হাসপাতালের শীর্ষ গবেষক ড. অ্যান ভ্যানকিরবার্গেন বলেন, করোনার এই দুটি ধরনই বেলজিয়ামে ছড়িয়েছে। এই নারী সম্ভবত দুজন ভিন্ন দুটি ব্যক্তির থেকে ভিন্ন দুটি ধরনের করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন বলে জানান বেলজিয়ামের এই চিকিৎসক।

এদিকে ২০২১ সালের জানুয়ারিতে ব্রাজিলের বিজ্ঞানীরা জানায়, দু’জন লোক একই সাথে দুই ধরনের করোনাভাইরাস সংক্রমিত হয়েছিল। তার মধ্যে উদ্বেগের একটি ধরন হলো গামা। পর্তুগালের গবেষকরা বলছেন, সম্প্রতি ১৭ বছরের এক কিশোর দুই ধরনের করোনায় আক্রান্ত হয়েছিল এবং সে সুস্থ হয়ে উঠেছে। প্রসঙ্গত, করোনার এই দুই ধরন আলফা এবং বিটা প্রথম যুক্তরাজ্য ও দক্ষিণ আফ্রিকায় দেখা যায়।

50% LikesVS
50% Dislikes
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ