সর্বশেষ

করোনা মহামারি পৃথিবীর মানুষ বেশি ক্ষুধার মতো পরিস্থিতির সম্মুখীন

কঠিন দুর্ভিক্ষ সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে পৃথিবীর মানুষ। ২০১৯ সালের তুলনায় ছয়গুণের বেশি মানুষ দুর্ভিক্ষের মতো পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছে ২০২০ সালে।
শুক্রবার এমন তথ্যই দিয়েছে ব্রিটিশভিত্তিক আন্তর্জাতিক দাতব্য সংস্থা অক্সফাম।

মহামারি করোনাভাইরাস জলবায়ু সংকটের মধ্যে থাকা মানুষকে ক্ষুধার মতো দানবের হাতে ছেড়ে দিয়েছে।
অক্সফাম এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, কোভিড মহামারি শুরুর পর থেকে বিশ্বজুড়ে ঝুঁকিপূর্ণ দারিদ্র্যে থাকা সম্প্রদায়গুলো বার বার একটি বার্তাই আমাদের পাঠাচ্ছে। তা হলো- ‘ক্ষুধা আমাদের করোনাভাইরাসের আগে মেরে ফেলতে পারে। মানুষকে মেরে ফেলার ক্ষেত্রে ক্ষুধা ছাড়িয়ে গেছে করোনাভাইরাসকে।’
অক্সফামের হিসাবমতে, বিশ্বে প্রতি মিনিটে ১১ জনের মৃত্যু হচ্ছে ক্ষুধায়। আর কোভিড-১৯ এর আক্রমণে এ মৃত্যুর সংখ্যা ৭ জন।
তারা বলছেন, মহামারির এ কঠিন সময়ে ইয়েমেন, মধ্য আফ্রিকা প্রজাতন্ত্র, আফগানিস্তান, দক্ষিণ সুদান, ভেনেজুয়েলা এবং সিরিয়ার মতো দেশগুলোতে খাদ্যাভাবে মৃত্যুর চিত্র ভয়াবহ। দেশগুলোর অর্থনৈতিক অবস্থা শোচনীয়।
অক্সফাম জানায়, ব্যাপক বেকারত্ব এবং খাদ্য উৎপাদন মারাত্মকভাবে ব্যাহত হওয়ায় বিশ্বব্যাপী খাদ্যের দাম ৪০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে, যা গত এক দশকেরও বেশি সময় ধরে খাদ্যমূল্য বৃদ্ধির সবচেয়ে বড় হার।
সামগ্রিকভাবে বিশ্বজুড়ে ৫ লাখের বেশি মানুষ ‘দুর্ভিক্ষের মতো পরিস্থিতিতে’ বসবাস করছেন এবং ১৫ কোটি ৫০ লাখ মানুষ ‘চরম ক্ষুধার্ত’ অবস্থায় বসবাস করছেন। এই সংখ্যা ফ্রান্স এবং জার্মানির মোট জনসংখ্যার সমান। এ হিসাবে ক্ষুধার্ত মানুষের সংখ্যা আগের বছরের তুলনায় ২ কোটি বেশি।

50% LikesVS
50% Dislikes
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ