সর্বশেষ

নগরীর বিভিন্ন মোড়ে চেকপোস্ট, টহল দিচ্ছে সেনাবাহিনী-বিজিবি

 

লকডাউন বাস্তবায়নে সিলেট নগরীর মোড়ে মোড়ে চেকপোস্ট বসিয়েছে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ। মোট ১৬ টি মোড়ে বসানো এসব চেকপোস্ট কাজ করছে যান চলাচল নিয়ন্ত্রণে। এমন অবস্থায় সড়কে যানবাহন নেই বললেই চলে।

শুক্রবার (২ জুলাই) লকডাউনের দ্বিতীয় দিন সকাল থেকে নগরীর সিলেটের প্রবেশদ্বার দক্ষিণ সুরমার অতির বাড়ি, কদমতলি, কুমারগাঁও ও বিমানবন্দর সড়কসহ নগরীর গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে বসানো হয়েছে পুলিশের চেকপোস্ট। জনগুরুত্বপূর্ণ কিছু পরিবহন ছাড়া আর কোনো যানবাহন চলতে দেওয়া হচ্ছে না। এতে রাস্তাঘাটে কমেছে মানুষের আনাগোনা, অনেকটা ফাঁকা অবস্থা। প্রয়োজন ছাড়া কোনো যানবাহন বা ব্যক্তিকে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় চলাচল করতে দেওয়া হচ্ছে না। এতে কেউ কেউ হেঁটেই রওনা দেন গন্তব্যে।

এদিকে পুলিশের সাথে গতকালের মতো আজও নগরীতে আছে সেনাবাহিনী ও বিজিবির টহল। চলছে সচেতনতামূলক প্রচারণা। সেই সাথে সিলেট জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত। সব মিলে লকডাউনের দ্বিতীয় দিনেও চলছে কড়াকড়ি অবস্থান।

এদিকে সিলেট জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে স্বাস্থ্য বিধি অনুসরণ নিশ্চিত করতে বৃহস্পতিবার লকডাউনের প্রথম দিন সিলেট মহানগর ও সকল উপজেলায় ৩৩ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এক সাথে কাজ করেছেন। এসব ম্যাজিস্ট্রেটদের নেতৃত্বে মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকালে ১৭২ টি মামলা ও ২ লাখ ৬’শ টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া লকডাউনে বিধি নিষেধ অমান্য করায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে সিলেট মহানগর পুলিশ নগরীর বিভিন্ন স্থানে এবং সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর উপস্থিতিতে সর্বমোট ২৫ জনকে ১১ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

এসময় পুলিশের অভিযানে সিএনজি অটোরিকশা ৯ টি, মোটরসাইকেল ৩০টি, প্রাইভেট কার ২টি ও অন্যান্য ৭ টি মামলাসহ সর্বমোট ৪৮টি মামলা করা হয়। এবং সিএনজি অটোরিকশা ১৮ টি, মোটরসাইকেল ৫৯ টি, প্রাইভেট কার ৩ টি, অন্যান্য ২৪টি সহ মোট ১০৪ টি গাড়ি আটক করে পুলিশ।

50% LikesVS
50% Dislikes
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ