সর্বশেষ

হাওলদার পাড়ার অসহায় দৃষ্টি প্রতিবন্ধী পরিবারের পাশে দাঁড়ালো শাবিপ্রবির ছাত্রলীগ

অসহায় দৃষ্টি প্রতিবন্ধী পরিবারের পাশে দাঁড়ালো শাবিপ্রবির ছাত্রলীগ

ফারুক আহমদ চৌধুরীঃ করোনা পরিস্থিতি, লকডাউন, তাপদাহ ও পবিত্র রমজান মাস- এসব কিছু মিলিয়ে কঠিন একটা সময় পার করছে সিলেটের গরীব, অসহায়, কর্মহীন দরিদ্র মানুষজন। এরকমই কঠিন দিন কাটছিল সিলেট ৮ নং ওয়ার্ডের হাওলদারপাড়ার প্রতিবন্ধী নাজমা বেগমের পরিবারের। ৫ সদস্যের ৪ জনই দৃষ্টি প্রতিবন্ধী। একজনের আয়ে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী মা বোন ও সন্তানকে নিয়ে খুব কষ্টে দিন কাটাচ্ছিলেন নাজমা বেগম।

তার এমন করুণ দিনযাপনের কথা শুনে বসে থাকতে পারেননি শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মৃন্ময় দাস ঝুটন । আজ ১২ মে বুধবার বিকেলে নাজমা বেগমের বাড়িতে উপস্থিত হয়ে নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রীও ঈদ উপহার তুলে দেন। এছাড়াও পরবর্তীতে আরও সহযোগিতার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ছাত্রলীগ নেতা সুমন তালুকদার ও শাবিপ্রবি বাংলা বিভাগ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাজীব সরকার।শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মৃন্ময় দাস ঝুটন জানায়, অসহায় দুঃখী মানুষগুলোর দুঃখ দুর্দশা আমাকে গভীরভাবে ভাবায় এবং বেদনা দেয়। এলাকায় এমন অনেক মানুষ আছেন, যারা অনাহারে-অর্ধহারে দিন কাটাচ্ছেন। কিন্তু লোকলজ্জায় কারো কাছে চাইতে পারছেন না।

প্রতিবন্ধী পরিবারের কাছে ঈদ উপহার পৌঁছে দিতে পেরেছি। আমার আন্তরিকভাবে খুব ভালো লাগছে অন্যরকম শান্তি লাগছে। আমি চাই আরো গরীব গরীব দুঃখী মানুষের পাশে দাঁড়াতে এবং আমার সাথে যারা রয়েছেন তারাও গরীব দুঃখী মানুষের পাশে দাঁড়াতে চায়। আমার জন্য সবাই দোয়া করবেন যেন মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারি। উল্লেখ্য করোনার শুরুর সময় থেকে মানবিক এই ছাত্রনেতা গরিব, অসহায় ও অস্বচ্ছল মানুষের পাশে রয়েছেন।।

করোনার প্রাদুর্ভাব এর শুরু থেকেই সচেতনতামূলক লিফলেট, মাস্ক,হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন।প্রতি রমজানে গরিব, অসহায় মানুষের মধ্যে ইফতার বিতরণ সহ ঈদ উপহার বিতরণ করেন।এছাড়াও এলাকার দরিদ্র মানুষকে আর্থিকভাবে সহায়তা করে যাচ্ছেন।

50% LikesVS
50% Dislikes
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ