সর্বশেষ

শ্রমিকদের চাপে সিলেট-হবিগঞ্জ-শ্রীমঙ্গল রুটে কমেছে বিআরটিসির বাস

ভাংচুর অরাজকতা করে কোন ধরনের বিচার কিংবা শাস্তির মুখোমুখি হতে হয়নি পরিবহন শ্রমিকদের। উল্টো তাদের কাছে নতি শিকার করে সিলেট-হবিগঞ্জ ও সিলেট-শ্রীমঙ্গল রুটে কমিয়ে দেয়া হয়েছে বিআরটিসির বাসের সংখ্যা। প্রতিদিন উভয় রুটে ৬ টি করে বাস চলাচলের কথা থাকলেও তা তিনটি করে করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সিলেটের বিভাগীয় কমিশনারের সম্মেলন কক্ষে সিলেট বিভাগের মালিক ও শ্রমিকদের সাথে আলোচনা সভা শেষে এ সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিলেট বিভাগীয় বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল কবীর পলাশ। তিনি বলেন, সভায় বিআরটিসির কয়টি বাস সিলেট টু হবিগঞ্জ ও সিলেট টু শ্রীমঙ্গল চলাচল করবে সে ব্যাপারে কোন সিদ্ধান্তে আসতে না পারায় বিভাগীয় কমিশনার মহোদয় পরবর্তীতে মোবাইলে জানাবেন বলে আমাদের আশ্বস্ত করে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন। পরবর্তীতে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে তিনি সিদ্ধান্ত দেন যে- উভয় রুটে তিনটি করে বিআরটিসি বাস চলাচল করবে।

প্রসঙ্গত, গত ২২ ডিসেম্বর সিলেট-শ্রীমঙ্গল ও সিলেট-হবিগঞ্জ সড়কে বিআরটিসি বাসের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। উদ্বোধনের পর থেকে এ দুই রুটে বিআরটিসির বাস চলাচলে আপত্তি জানিয়ে আসছিলেন পরিবহন মালিক-শ্রমিকরা। আর শুরু থেকেই সাধারণ যাত্রীরা বিআরটিসির বাসকে স্বাগত জানিয়ে আসছিলেন।

এরপর রোববার সকালে সিলেট থেকে শ্রীমঙ্গলগামী বিআরটিসির একটি বাস নানা বাধা পেরিয়ে গন্তব্যে পৌঁছলেও সকাল সাড়ে নয়টায় হবিগঞ্জের উদ্দেশ্যে আরও একটি বাস ছাড়তে গিয়ে ঘটে বিপত্তি। এমনকি বাসটি ছাড়ার পাক্কালে সাধারণ পরিবহন শ্রমিক নেতারা এতে বাধা দেন। এসময় বিআরটিসির কাউন্টারে হামলা চালিয়ে ডিপো ম্যানেজার মো. জুলফিকার আলীকেও লাঞ্ছিত করে তারা। বিআরটিসি কর্তৃপক্ষের অভিযোগ; এসময় পরিবহন শ্রমিকরা তাদের একটি ল্যাপটপ ও নগদ সাড়ে ১২ হাজার টাকাও নিয়ে যায়।

ওই ঘটনার পর থেকেই বিআরটিসি কর্তৃপক্ষ, পুলিশ প্রশাসন ও পরিবহন মালিক-শ্রমিক নেতাদের দফায় দফায় বৈঠক শেষে সমঝোতার চেষ্টা করা হয়। শেষ পর্যন্ত পরিবহন মালিক শ্রমিকদের কাছে নতি শিকার করে সিলেট-হবিগঞ্জ ও সিলেট-শ্রীমঙ্গল রুটে বাস কমিয়ে দিতে বাধ্য হয়েছে বিআরটিসি ও প্রশাসন।

50% LikesVS
50% Dislikes
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ