সর্বশেষ

বড়লেখায় যুবলীগ সভাপতিসহ ২১ জনের বিরুদ্ধে মামলা

বড়লেখায় প্রশাসনের বিশেষ অভিযানে নিষিদ্ধ পলিথিন উদ্ধারের জেরে ঘটিত দুইপক্ষের মধ্যকার সংঘর্ষের ঘটনায় এবার পৌর কাউন্সিলর আব্দুল মালিক ঝুনু ও পৌর যুবলীগের সভাপতি জসিম উদ্দিনসহ ২১ জনের বিরুদ্ধে থানায় হামলা ও লুটপাটের মামলা হয়েছে। সোমবার মামলাটি রুজু করেছেন উপজেলার তালিমপুর গ্রামের ফখর উদ্দিনের ছেলে ও বড়লেখা হাজীগঞ্জ বাজারের ব্যবসায়ী সেলিম আহমদ। অপরপক্ষের পৃথক দুই মামলায় এজাহার নামীয় ৩ আসামীকে পুলিশ ইতিমধ্যে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছে।
মামলা সুত্রে জানা গেছে, গত ২ জুলাই সকালে ব্যবসায়ী সেলিম আহমদ বড়লেখা হাজীগঞ্জ বাজারে যাওয়ার সময় বড়লেখা-চান্দগ্রাম সড়কের বারইগ্রাম আলহেরা স্কুলের সামনে পৌঁছামাত্র পূর্ব আক্রোশে মোটর সাইকেলের গতিরোধ করে পৌর কাউন্সিলর আব্দুল মালিক ঝুনু ও পৌর যুবলীগের সভাপতি জসিম উদ্দিনের নেতৃত্বে সঙ্গবদ্ধ লোকজন হত্যার উদ্দেশ্যে তার ওপর হামলা চালায়। এতে তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে মারাত্মক জখম হয়।
এর আগে ওই মামলার ২ নং আসামী পৌর যুবলীগের সভাপতি জসিম উদ্দিন ও তার ভাই শামীম আহমদ জনৈক সাইদুল ইসলামকে ১নং আসামী করে থাকায় পৃথক দুইটি মামলা করেন। শনিবার এ দুই মামলায় পুলিশ ৩ আসামীকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে।
উল্লেখ্য গত ২ জুলাই পৌরশহরের গাজীটেকায় দুইপক্ষের মধ্যে দুই দফা সংঘর্ষ ঘটে। এতে উভয় পক্ষের ১৫ ব্যক্তি আহত হন। এদের ৮জনকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।
বড়লেখা থানার ওসি মো. ইয়াছিনুল হক জানান, সংঘর্ষের ঘটনায় একপক্ষের পৃথক দুই মামলায় এজাহার নামীয় ৩ আসামীকে ইতিমধ্যে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। সোমবার সেলিম আহমদ নামে এক ব্যবসায়ী থানায় আরেকটি মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ এ মামলার আসামীদেরও গ্রেফতারের জন্য অভিযান চালাচ্ছে।

50% LikesVS
50% Dislikes
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ