সর্বশেষ

৭০ মণ পলিথিন উদ্ধার বড়লেখায়

বড়লেখায় ভ্রাম্যমাণ আদালত বিশেষ অভিযান চালিয়ে বুধবার সন্ধ্যায় পৌর শহরের বিভিন্ন স্থান থেকে ৭০ মণ নিষিদ্ধ পলিথিন উদ্ধার করেছে। উদ্ধার অবৈধ পলিথিনের বাজার মূল্য ৯ লক্ষাধিক টাকা। এই ঘটনায় ৪ ব্যবসায়ীকে ৩৬ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। জানা গেছে, বড়লেখা শহরের বিভিন্ন স্থানে নিষিদ্ধ পলিথিন মজুদ করে বিক্রি হচ্ছে বলে থানা পুলিশ গোপন তথ্য পায়। বুধবার সকাল থেকে পুলিশের সাদা পোষাকের একটি টিম গোদামগুলো নজরদারি করছিল। সন্ধ্যায় ভ্রাম্যমাণ আদালত গোদামগুলোতে বিশেষ অভিযান চালায়।

এ সময় শহরের শাহজালাল শপিং সিটির ৩টি, বিসমিল্লাহ মার্কেটের ২টি ও উত্তর বাজার এলাকার ১টি গোদাম থেকে ৭০ মন নিষিদ্ধ পলিথিন উদ্ধার ও জব্দ করা হয়। যার বাজার মূল্য লক্ষাধিক টাকা। পরে জনসম্মুখে পলিথিনগুলো পুড়িয়ে ফেলা হয়। নিষিদ্ধ পলিথিন মজুদের অভিযোগে ভ্রাম্যমাণ আদালত ব্যবসায়ী সেলিম আহমদকে ২০ হাজার টাকা, আব্দুল হাছিবকে ৫ হাজার এবং আব্দুস সামাদকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন। অন্যদিকে একই অভিযানে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নুসরাত লায়লা নীরার ভ্রাম্যমাণ আদালত নিষিদ্ধ পলিথিন মজুদের অভিযোগে ব্যবসায়ী ওমর হোসেনকে ৬ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

ওসি মো. ইয়াছিনুল হক জানান, কয়েকদিন থেকে গোপন তথ্য ছিল পরিবেশ সংরক্ষণ আইনে নিষিদ্ধঘোষিত বিপুল পরিমান পলিথিন মজুদ আছে। এই তথ্যের ভিত্তিতে নজরদারি বাড়াই। এর আগে ২৯ জুন সোমবার ভোরে পলিথিন উদ্ধার করে ৩ জনের নামে মামলা দেয়া হয়। বুধবার গোদামগুলোতে সাদা পোষাকে পুলিশের নজরদারি বাড়ানো হয়। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমান পলিথিন জব্দ করা হয়।

ইউএনও মো. শামীম আল ইমরান জানান, থানার ওসি’র কাছে গোপন তথ্য ছিল শহরের বেশ কয়েকটি গোদামে পরিবেশ সংরক্ষণ আইনে নিষিদ্ধঘোষিত বিপুল পরিমান পলিথিন মজুদ রয়েছে। এ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাৎক্ষণিক অভিযান চালানো হয়। এতে ৯ লাখ টাকার বিপুল পরিমাণ পলিথিন জব্দ করা হয়। পরে তা পুড়িয়ে ফেলা হয়। অভিযানে ৪ জনকে ৩৬ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ