সর্বশেষ

জগন্নাথপুরে আরো নতুন ৭ জন সহ মোট ৬২ জনের করোনা শনাক্ত, ১৫ জন সুস্থ

জগন্নাথপুরে নতুন করে আরো ৭ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বলে শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলায় ৬২ জন করোনায় আক্রান্ত হলেন। তমধ্যে ১৫ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরছেন। ১ জন সিলেট শহীদ সামসুউদ্দিন হাসপাতালে এবং ৪৬ জন হোম আইসোলেশনে রয়েছেন। নতুন আক্রান্ত ৭ জনকে হোম আইসোলেশন রাখা হয়েছে।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, ১৮ ই জুন দিবাগত রাতে সিলেট শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয় এর পিসিআর ল্যাব থেকে প্রকাশিত কোভিড-১৯ পরীক্ষার রিপোর্টে সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার রানীগঞ্জের ১ জন, কলকলিয়া ইউনিয়ন এর কামারখাঁল গ্রামের ১ জন ও জগন্নাথপুর পৌর এলাকার জগন্নাথপুর গ্রামের ৫ জন পজিটিভ সনাক্ত হয়েছেন।

আজ ১৯ শে জুন রোজ সকাল প্রায় ১১ ঘটিকার সময় জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডাঃ মোঃ নাজমুস শাহাদাত এর নেতৃত্বে একটি মেডিকেল টিম প্রাথমিক পরীক্ষা শেষে আক্রান্ত ব্যক্তিদেরকে হোম আইসোলেশনে রাখেন এবং চিকিৎসা সহ পরবর্তী স্বাস্থ্যবার্তা প্রদান করেছেন।
এছাড়াও আক্রান্ত ব্যক্তিদের পরিবারের সবাইকে শতভাগ হোম কোয়ারান্টাইনে থাকা নিশ্চিত সহ আশেপাশের তিনটি বাড়িকে সরকার নির্দেশিত স্বাস্থ্যবিধি মেনে সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থা অবলম্বন করার জন্য কঠোর নির্দেশনা লকডাউন ঘোষণা করা হয়।

এসময় উপস্হিত ছিলেন জগন্নাথপুর উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়ন এর সদস্য মোঃ আব্দুল জলিল, সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক রুমি রায় ও মোঃ আব্দুল জলিল, স্বাস্থ্য সহকারী মোঃ আমীরুল ইসলাম, স্বাস্থ্য সহকারী সুমন্ত দেবনাথ, এম্বুলেন্স চালক প্রাণেশ চন্দ্র দাস এবং বিশিষ্ট সমাজকর্মী মোঃ শাহজাহান উদ্দীন রুহেল ও রাজীব চৌধুরী সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা.মধু সুধন ধর বলেন, জগন্নাথপুর উপজেলায় এখন পর্যন্ত সর্বমোট ৬২ জন ব্যক্তি ‘কোভিড-১৯’ পজিটিভ হয়েছেন। তমধ্যে ১২ জন পূর্ণ সুস্থ হয়ে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরেছেন। ১ জন সিলেট শহীদ শামসুদ্দিন আহমেদ হাসপাতালে এবং ৪৬ জন নিজেদের বাড়িতে হোম আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসাধীন আছেন।

তিনি আরো বলেন, আপনারা দেখতে পাচ্ছেন বর্তমানে সারা বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা যেমন বৃদ্ধি পাচ্ছে তেমনি মৃত্যুর সংখ্যাও আশংকাজনক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে।
জগন্নাথপুরেও প্রায় প্রতিদিন নতুন করে আক্রান্ত হচ্ছেন। তাই দয়া করে জরুরি প্রয়োজন ছাড়া অযথা বাইরে ঘুরাঘুরি করবেন না, বাইরে গেলে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করুন,বার বার সাবান পানি বা হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে হাত পরিস্কার করুন। হালকা কুসুম গরম পানি বেশি করে পান করার পাশাপাশি ভিটামিন সি ও জিংক সমৃদ্ধ খাবার,সবুজ শাকসবজি খাবার তালিকায় রাখুন। প্রতিদিন হালকা রোদে ৩০ মিনিট ব্যায়াম করুন এবং ধুমপান ও তামাক জাতীয় দ্রব্য সেবন করা থেকে বিরত থাকুন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ