সর্বশেষ

চীনের ৩ ভ্যাকসিন ও ৫ ওষুধের ক্লিনিক্যাল পরীক্ষা

চীনের রাজধানী বেইজিংয়ে করোনাভাইরাসের সংক্রমণে সৃষ্ট রোগ কোভিড-১৯ এর তিনটি ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় পর্যায়ে ক্লিনিক্যাল পরীক্ষা শুরু হয়েছে। একইসঙ্গে পাঁচটি নতুন উদ্ভাবিত ওষুধেরও দ্বিতীয় পর্যায়ের ক্লিনিক্যাল পরীক্ষা শুরু হয়েছে।

গতকাল রোববার বেইজিং মিউনিসিপাল সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি কমিশনের প্রধান শু কিয়াং এক সংবাদ বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে বলে সংবাদ প্রকাশ করেছে চায়না গ্লোবাল টেলিভিশন নেটওয়ার্ক (সিজিটিএন)।

ওই সংবাদ বিবৃতিতে শু কিয়াং জানান, কোভিড-১৯ মোকাবিলায় ২১টি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। এই প্রকল্পের অধীনে করোনাভাইরাসের তিনটি ভ্যাকসিন এবং পাঁচটি ওষুধ দ্বিতীয় পর্যায়ের ক্লিনিক্যাল পরীক্ষা চলছে।

তিনি আরও জানান, চীনের জনস্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য জরুরি ব্যবস্থাপনা জোরদার করার বিষয়ে তিন বছরের (২০২০-২২২২) কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। এই পরিকল্পনা অনুসারে প্রতিরোধ, ক্লিনিক্যাল অনুশীলন, বৈজ্ঞানিক গবেষণা, চিকিৎসা এবং প্রকল্পের জরুরি অনুমোদনের জন্য একটি সংযোগ ব্যবস্থা স্থাপন করা হবে।

এই প্রকল্পের মাধ্যমে ডায়াগনস্টিক রিজেন্টস উন্নয়ন, ওষুধ, ভ্যাকসিন এবং চিকিত্সা সরঞ্জামগুলোর গবেষণা ও বিকাশকে ত্বরান্বিত করতে এবং ক্রমবর্ধমান চাহিদা মেটাতে ওষুধ ও ভ্যাকসিন নির্মাতাদের ক্ষমতা বাড়ানোর ক্ষেত্রে সহায়তা করা হবে।

প্রসঙ্গত, এর আগে গত ১৪ এপ্রিল করোনাভাইরাসের দুটি নতুন ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল অনুমোদন দিয়েছিল চীন। এর আগেও একটি ভ্যাকসিন ক্লিনিক্যাল পরীক্ষার অনুমোদন দেয় চীন। ওই ভ্যাকসিন দুটি তৈরি করেছিল চীনা ন্যাশনাল ফার্মাসিউটিক্যাল গ্রুপের উহান ইনস্টিটিউট অব বায়োলজিক্যাল প্রোডাক্টস ও বেইজিংভিত্তিক সিনোভাক বায়োটেক।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ