সর্বশেষ

যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় মৃত্যু ৬৭ হাজার ছাড়াল

প্রাণঘাতী করোনার ভয়াবহতা ইউরোপে কিছুটা প্রতিরোধ করা গেলেও বাগে আনা যাচ্ছে না মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। ফলে মৃত্যু উপত্যকায় পরিণত হওয়া দেশটিতে প্রতিদিন গড়ে দুই হাজার করে মানুষ প্রাণ হারাচ্ছেন।
টালমাল হয়ে পড়েছে অর্থনীতির চাকা। বিপর্যস্ত জীবনব্যবস্থা। এমন অবস্থায় থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর আশা প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের।
বাংলাদেশ সময় রবিবার সকাল পর্যন্ত বিশ্বখ্যাত ওয়ার্ল্ডওমিটারের দেয়া তথ্যানুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৬৯১ জনের মৃত্যু হয়েছে। ফলে মোট প্রাণহানি বেড়ে ৬৭ হাজার ৪৪৪ জনে দাঁড়িয়েছে। শিকার হয়েছেন আরও অন্তত ২৯ হাজার ৭৪৪ জন। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ১১ লাখ ৬০ হাজার ৭৪৪ জনে ঠেকেছে, যা যে কোনো দেশের তুলনায় কয়েকগুণ।
সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার তুলনায় সুস্থ হওয়ার হার অনেক কম। দেশটিতে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ১ লাখ প্রায় ৭৪ হাজার মানুষ। আক্রান্তদের মধ্যে গুরুতর অবস্থায় আরও ১৬ হাজার ৪৭৫ জন।
দেশটিতে প্রাণ হারাদের মধ্যে প্রবাসী বাংলাদেশিও রয়েছেন। গত ৪৬ দিনে করোনায় আক্রান্ত হয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ৬ রাজ্যে মোট ২২৮ জন বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে নিউইয়র্কেই ২০৮ ও নিউজার্সিতে ৮ জন।
এদিকে, যুক্তরাষ্ট্রে করোনার সবচেয়ে শক্তিশালী পয়েন্ট নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্য। যেখানে এখন পর্যন্ত ২৪ হাজার ৩৬৮ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। আক্রান্ত ৩ লাখ ১৯ হাজার ২১৩ জন। এর পরই রয়েছে নিউ জার্সি। যেখানে ভাইরাসটি থাবায় ৭ হাজার ৭৪২ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত বেড়ে সংখ্যা ১ লাখ ২৩ হাজার ৭১৭ জনে পৌঁছেছে।
গত বছর ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের উহান শহর থেকে ২১১টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়ে ভাইরাসটি। যা বিশ্বব্যাপী মহামারি রূপ নেয়। যাতে এখন পর্যন্ত ৩৪ লাখ ৮১ হাজার ৩৫১ আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় ৮৩ হাজারের বেশি মানুষ নতুন করে শিকার হন। মারা গেছেন এখন পর্যন্ত ২ লাখ ৪৪ হাজার ৬৬৩ জন। এর মধ্যে গত একদিনেই প্রাণ গেছে ৫ হাজার ২১৫ জনের। আর সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ১১ লাখ ২১ হাজার ৪৯৯ জন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ