সর্বশেষ

বাধ্য না হলে দেশে না আসার অনুরোধ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

বাধ্য না হলে প্রবাসী শ্রমিকদের দেশে ফিরে না আসতে অনুরাধ করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। তিনি বলেছেন, ‘আপৎকালীন সময় পার হলে তাদের জন্য ভালো সময় আসবে। প্রবাসীদের কেউ যেন না খেয়ে থাকে সে জন্য সরকার খাদ্য সহায়তা দিচ্ছে।’

সৌদি আরবে প্রবাসী বাংলাদেশিদের স্বাস্থ্যসেবা ও পরামর্শ প্রদানের জন্য গঠিত ‘প্রবাসবন্ধুকলসেন্টার’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আজ বুধবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

ভিডিও কনফারেন্সে পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় থেকে সংযুক্ত হয়ে ড. মোমেন বলেন, ‘প্রবাসীরা বাংলাদেশের সম্পদ। তাদের সহযোগিতার জন্য বাংলাদেশের সকল বৈদেশিক দূতাবাসকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’ করোনা ভাইরাস থেকে নিজেদেরকে মুক্ত রাখতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য সকল প্রবাসী বাংলাদেশিদের অনুরোধ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

‘সৌদি আরবে ২২ লক্ষ প্রবাসী বাংলাদেশির বাসায় বসে স্বাস্থ্যসেবা গ্রহণের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে’, বলেন তিনি।

অন্যান্য দেশের মধ্যে যেখানে অধিক সংখ্যক প্রবাসী আছে সেখানেও এ সেবা চালুর জন্য বাংলাদেশের বৈদেশিক মিশনপ্রধানদের অনুরোধ করেন। এ বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সার্বিক সহযোগিতা প্রদানের অঙ্গীকার পূর্নব্যক্ত করেন ড. মোমেন। তিনি বলেন, ‘নিউইয়র্ক, লন্ডনসহ কয়েকটি দেশে এ সেবা চালু আছে।’ এ সময় প্রবাসীদের বর্তমান পরিস্থিতিতে এ সেবা নেওয়ার অনুরোধ করেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, ‘এটুআই এবং আইসিটি বিভাগের সহযোগিতায় এ কলসেন্টারটি চালু করা হলো। এ কলসেন্টারের মাধ্যমে প্রবাসী ডাক্তাররা প্রবাসী বাংলাদেশিদের টেলিফোনে সকাল ৯টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত স্বাস্থ্যসেবা ও পরামর্শ প্রদান করবেন।’

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক এ সময় ভিডিও কনফারেন্সে সংযুক্ত ছিলেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ