সর্বশেষ

মার্কিন রিপোর্ট
ভারতে প্রতিনিয়ত ধর্মীয় স্বাধীনতা ব্যাহত হচ্ছে

ইউএস কমিশন অন ইন্টারন্যাশানাল রিলিজিয়াস ফ্রিডম (ইউএসসিআইআরএফ) এক রিপোর্টে জানিয়েছে, ভারতে ধর্মীয় স্বাধীনতার ওপর নিয়মিত হস্তক্ষেপ হচ্ছে এবং যে কার্যকলাপ প্রকাশ পাচ্ছে তাতে প্রতি মুহূর্তে এই স্বাধীনতা খর্ব হচ্ছে। নিউজ১৮

সংস্থাটির দাবি, ভারত সরকার সংখ্যালঘুদের বিরুদ্ধে হিংসা ছড়াচ্ছে। তারা ঘৃণা উদ্রেককারী বক্তৃতা এবং হিংসায় উস্কানি দেওয়ার মতো কাহিনীও ঘটিয়েছে।
এদিকে এই রিপোর্ট গ্রহণ করতে নারাজ কেন্দ্র। ভারত সরকারের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলছেন, ‘ভারতের বিরুদ্ধে একপেশে ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মন্তব্য নতুন কিছু নয়। তবে এবারের স্তরটি একেবারে নতুন। এটা শুধু একটা সংস্থার নিজেদের মত এবং আমরা এর যথাযথ ব্যবস্থা নেব।’ ওয়ান ইন্ডিয়া

রিপোর্টে আসামের নাগরিকত্ব আইনকে বিশেষভাবে উল্লেখ করা হয়েছে। অর্থাৎ সিএএ ও এনআরসি আইন। এতে বলা হয়েছে, ‘বিজেপি নেতারা জোর করে সারা দেশে এনআরসি আইন বাস্তবায়ণ করছে। সিএএ আইন দ্বারা শুধু মুসলিমদেরই কোনঠাসা করে চিহ্নিতকরণ করা হচ্ছে। দ্য ওয়াল

রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে, ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে দিল্লিতে তিন দিন ধরে হিংসা চলেছে। মুসলিমদের আক্রমণ করা হয়েছে। সেই হামলা বন্ধ করতে শুরুতে পুলিশ সক্রিয় ছিল না। বরং অভিযোগ, কোথাও কোথাও হামলাকারীদের ইন্ধন দিয়েছে পুলিশ।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ