সর্বশেষ

একদিনে ৮ হাজারের বেশি মৃত্যু, ৮৫ হাজার আক্রান্ত

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে  গত ২৪ ঘণ্টায় প্রাণ হারিয়েছেন ৮ হাজারের বেশি মানুষ। একই দিনে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৮৫ হাজার।
সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। করোনাভাইরাসে রীতিমতো বিধ্বস্ত দেশটি। প্রতিদিনই মৃত্যুর নতুন রেকর্ড গড়ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে মারা গেছেন ২৪৮২ জন। যা আগের দিন ছিল ২৪০৭।
তবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলছেন, যুক্তরাষ্ট্র করোনাভাইরাস সংক্রমণের সর্বোচ্চ পর্যায় অতিক্রম করে ফেলেছে। চলতি মাসেই কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে কড়াকড়ি শিথিল করার কথাও ভাবছেন তিনি।
ইউরোপের দেশগুলোয়ও করোনার দাপট কমেনি। একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু দেখেছে ফ্রান্স ও জার্মানি। এশিয়ায় জাপান ও সিঙ্গাপুরে করোনার সংক্রমণ বেড়েছে। খবর বিবিসি, এএফপি ও রয়টার্সসহ বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের।
বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৭টা পর্যন্ত ওয়ার্ল্ডওমিটারসের তথ্য অনুযায়ী বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ লাখ ৩৬ হাজার ১০৮ জন, আক্রান্ত হয়েছেন ২১ লাখ ১ হাজার ৮৬৬ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৫ লাখ ২৩ হাজার ৯৯২ জন।
বিশ্বে করোনায় মৃত্যুতে শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে এ পর্যন্ত ২৮ হাজার ৫৭২ জন প্রাণ হারিয়েছেন। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৬ লাখ ৪৪ হাজার ৮০৬ জন। যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা গেছেন নিউইয়র্কে।
এ অঙ্গরাজ্যে একদিনে প্রাণ হারিয়েছেন আরও ৭৮৬ জন। এ নিয়ে সেখানে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার ৮৪২ জন। আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখেরও বেশি মানুষ। এরপর নিউজার্সিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৬৮ হাজার ৮৩৪ জন, মারা গেছেন ২ হাজার ৮০৫ জন।
এদিন আক্রান্তের সংখ্যায় মিশিগানকে টপকে তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে ম্যাসাচুসেটস। এ অঙ্গরাজ্যটিতে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ২৭ হাজারের বেশি, মারা গেছেন ৮৪৪ জন। মিশিগানে ২৫ হাজার আক্রান্ত ও ১ হাজার ৬০২ জনের মৃত্যু হয়েছে।
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ সর্বোচ্চ পর্যায় অতিক্রম করে ফেলেছে। চলতি মাসে বেশ কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে কড়াকড়ি শিথিল করা যাবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।
বুধবার হোয়াইট হাউসে নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন ট্রাম্প। ট্রাম্প জানান, গভর্নরদের সঙ্গে আলোচনা শেষে অঙ্গরাজ্যগুলোর কর্মকাণ্ড চালুর বিষয়ে দিকনির্দেশনা দেয়া হতে পারে।
তিনি বলেন, আমরা আমাদের দেশকে আগের অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে চাই। হোয়াইট হাউসের রোজ গার্ডেনে সাংবাদিকদের ট্রাম্প বলেন, পরিসংখ্যান দেখে বোঝা যাচ্ছে, আমরা সংক্রমণের শীর্ষ পর্যায় পার করেছি। আশা করছি, এটি অব্যাহত থাকবে এবং আমরা দুর্দান্ত অগ্রগতি অব্যাহত রাখব।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ