সর্বশেষ

ওসমানী বিমানবন্দরে আটকা পড়লেন ১২ প্রবাসী

সিলেটের এমএজি ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে প্রায় ৩ ঘণ্টা আটকা পড়েছিলেন সৌদি ফেরত ১২ যাত্রী।

করোনা ভাইরাস পরীক্ষায় সংশ্লিষ্ট চিকিৎসক উপস্থিত না থাকায় তাঁদেরকে এমন দুর্ভোগে পড়তে হয়।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সৌদি আরব থেকে আসা ওই যাত্রীরা ঢাকা হয়ে সিলেট যান। কিন্তু ওসমানী বিমানবন্দরে থার্মাল স্ক্যানারে করোনা পরীক্ষা করার জন্য কোনো চিকিৎসক না থাকায় সন্ধ্যা পৌনে ৭টা থেকে রাত সোয়া ৯টা পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ৩ ঘণ্টা আটকা পড়েন তারা।

এ কারণে তাদের নিতে আসা স্বজনরাও ভোগান্তিতে পড়েন।

এসময় বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের আচরণও বিব্রতকর ছিলো ব্লে অভিযোগ করেছেন যাত্রীরা।

এবিষয়ে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ বলছে, বিমানবন্দরে আগে নভেল করোনা ভাইরাস পরীক্ষার জন্য অ্যানালগ থার্মোমিটার ছিল। যা পুরোপুরি কাজ করছিল না। এরপর গত মঙ্গলবার নতুন থার্মাল স্ক্যানার বসানো হয়। এর জন্য ৩ জন চিকিৎসক ও নার্সকে পরীক্ষক হিসেবে নিয়োজিত করা হয়। কিন্তু একটি নির্দিষ্ট সময় পরে তারা চলে গিয়েছিলেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ