সর্বশেষ

চলচ্চিত্র অভিনেতা তাপস পাল আর নেই

ভারতীয় বাংলা সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেতা তাপস পাল আর নেই। মঙ্গলবার ভোররাত ৩টা ৩৫ মিনিটে মুম্বাইয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বাংলা চলচ্চিত্রের এই অভিনেতা।

দীর্ঘদিন ধরে স্নায়ুর রোগে ভুগছিলেন এই অভিনেতা। কথা বলা ও চলা-ফেরায় সমস্যা ছিল। ১ ফেব্রুয়ারি বান্দ্রার হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর থেকেই তিনি ভেন্টিলেশনে ছিলেন। ৬ ফেব্রুয়ারি ভেন্টিলেশন থেকে বের করা হয়। গত রাতে ফের অসুস্থ হয়ে পড়েন তাপস পাল। রাত ৩টা ৩৫ মিনিটে তার মৃত্যু হয়।

১৯৫৮ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর হুগলির চন্দননগরে জন্ম তাপস পালের। কলেজে পড়াকালীন নজরে পড়েন পরিচালক তরুণ মজুমদারের। ২২ বছর বয়সে মুক্তি পায় প্রথম ছবি ‘দাদার কীর্তি’। এরপর একের পর এক হিট ছবি উপহার দিয়েছেন দর্শকদের।

উল্লেখযোগ্য ছবিগুলির মধ্যে রয়েছে ‘সাহেব’, ‘অনুরাগের ছোঁয়া’, ‘পারাবত প্রিয়া’, ‘ভালোবাসা ভালোবাসা’। ‘সাহেব’ ছবির জন্য পান ফিল্ম ফেয়ার পুরস্কার। বাংলার পাশাপাশি তাপস পাল অভিনয় করেছেন হিন্দি ছবিতেও। মাধুরী দীক্ষিতের বিপরীতে অভিনয় করেন ‘অবোধ’ ছবিতে।

পরে রাজনীতিতে আসেন তাপস পাল। ২০০৯ সালে কৃষ্ণনগর লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল সাংসদ হন। নাম জড়ায় চিটফান্ডকাণ্ডেও। ২০১৬-র ডিসেম্বরে রোজভ্যালিকাণ্ডে তাপস পালকে গ্রেপ্তার করে সিবিআই। ২০১৮-র ফেব্রুয়ারিতে রোজভ্যালি মামলায় তিনি জামিন পান।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ