সর্বশেষ

হাওর রক্ষা বাঁধে অনিয়ম, ক্ষুদ্ধ জেলা প্রশাসক

জগন্নাথপুর

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলায় হাওরের বোরো ফসল রক্ষা বেড়িবাঁধের কাজে অনিয়ম দেখে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ।

গতকাল সন্ধ্যায় আব্দুস সামাদ আজাদ মিলনায়তনে হাওরের ফসল রক্ষা বেড়িবাঁধ নির্মাণ তদারক কমিটির মতবিনিময় সভায় তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

তিনি বলেন, হাওরের ফসল রক্ষা বেড়িবাঁধের কাজে কোন ধরনের অনিয়ম-দুর্নীতি বরদাশত করা হবে না। আমরা সরকারের নির্দেশনায় মাঠে কাজ করছি। এখন পর্যন্ত কোন প্রকল্পে সঠিকভাবে কোন কাজ হয়নি। তিনি প্রকল্পের সভাপতি ও সদস্য সচিবদেরকে দ্রুত সঠিকভাবে প্রকল্পের কাজ শেষ করার নির্দেশ দেন।

সঠিকভাবে কাজ না করা হলেও তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে জানিয়ে জেলা প্রশাসক আরও বলেন, জনগণের টাকা কোন ভাবে অপচয় করতে দেওয়া হবে। স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার মাধ্যমে প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে। নীতিমালা অনুযায়ী কাজ বাস্তবায়ন না হলে মামলা করা হবে বলেও হুশিয়ারি দেন তিনি।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ পরিদর্শনকালে সাংবাদিককে জানান, হাওরের ফসল রক্ষা বেড়িবাঁধের কাজে কোন ধরনের অনিয়ম দুর্নীতি ও দুর্নীতি বরদাশত করা হবে না। আমরা সরকারের নির্দেশনায় মাঠে কাজ করছি। তিনি জানান, নলুয়া হাওরের ২৫ নং প্রকল্পের দুই পাশ থেকে মাটি উত্তোলন করে বাঁধে মাটি ফেলা হয়েছে। স্লিপ এবং কমপেকশন হয়নি। কাজ হয়েছে দায়সারা। একইভাবে ২৬ প্রকল্পের কাজেও অনিয়ম দেখা গেছে। সঠিকভাবে কাজ সম্পন্ন না করা হলেও তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড জগন্নাথপুর উপজেলা কার্যালয় সূত্র জানায়, এবার ৪৫টি প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি (পিআইসি) গঠনের মাধ্যমে ৪২.৩১০ কিলোমিটার বেড়িবাঁধের কাজ হবে। এই কাজের জন্য বরাদ্দ দেয়া হয়েছে তিন কোটি টাকা। গত ১৫ ডিসেম্বর থেকে কাজ শুরু হয়। প্রায় দেড় মাসেও হাওরের একটি বাঁধের কাজও শতভাগ শেষ হয়নি। আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারিতে বাঁধের কাজ শেষ করার নির্ধারিত সময়।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ